সনাতন ধর্ম কি, এবং কি নয়

প্রচুর সরকারি এবং বেসরকারি নথিতে Religion বলে যে পঙ্কতিটি পুরন করতে হয়, তাতে চিরকাল আমি Hindu লিখে এসেছি৷ লিখি, আর মনে মনে হাসি৷ আমাদের কাঁধে একটা বড় গুরুভার আছে৷ পাঁচ হাজার, নাকি দশ হাজার, নাকি তারো পুরানো? কেউ জানে না; আমাদের এই অতি প্রাচিন ধর্ম, শভ্যতা, কৃষ্টী৷ সেই অতী প্রাচীন অথচ চীর নবীন এই ধর্ম আমাদের একটা বিশাল ভার৷ তাকে বাঁচিয়ে রাখার, নতুন প্রজন্মকে তা তুলে দেওয়া৷ যেমন করে যুগ-যুগান্তর ধরে প্রাচীন মুনি-ঋষিরা বংশ পরম্পরায় আমাদের ধর্মের কত শুত্র, কত মন্ত্র শ্রূতি ও স্ম্রিতির সাহাজ্যে সচল রেখেছিলেন৷ তারা কিন্তু নিজেদেরকে কোনদিন হিন্দু বলতেন না৷

হিন্দু কথাটার ঊৎপত্তি নিয়ে প্রচুর মতভেদ আছে৷ তবে, যেটাতে সবাই একমত, তা হল, যবনরা ভারতে এসে ভারতবাসিদের প্রথম বলে হিন্দু৷ ভারতবাসিরা কবে থেকে নিজেদেরকে হিন্দু বলতে শুরু করে আমার জানা নেই৷ এই হিন্দু নামকরনের দুটি কারন হতে পারে৷ এক, ইন্দ্রের পুজারি হিন্দু৷ দুই, সিন্ধু নদির পরপারে যারা বাস করে, তারা হিন্দু৷ পন্ডিতরা সাধরণত দুইকেই মানেন৷ হিন্দু শব্দটা আসলে একটি তথাকথিত slang বা অপভ্রংশ৷ আমদের ধর্ম শনাতন ধর্ম৷ Its more like a way of life than religion in the Western sense. সংক্সৃতে ধর্ম মানে হচ্ছে গুণ বা Property৷ লোহার যেমন গুণ, চুম্বকের দ্বারা আকৃষ্ট হওয়া৷ তেমনি, আমাদের জীবনের ধর্ম হল এই সনাতন ধর্ম, তাতে সে নাস্তিক হোক, বা অধার্মিক হোক, সে মানুক, না মানুক, কিচ্ছু এসে যায় না৷ এটা মনুষ্য ধর্ম৷ পাশ্চাত্য মতে এই ধর্মের মানেটায় পুরো আলাদা৷ তাদের কাছে এটা বিশ্বাস৷ আমাদের কাছে এটা বিশ্বাসের থেকে অনেক উপরে৷ এটা আমাদের জীবনের পধ্যতি৷

“জন্মিলে মরিতে হইবে, মরিলে জন্মিতে হইবে”৷ No escape from this cycle of births and re-births, whether you deny this, believe this, or laugh at this, does not matter. Simply does not matter.